পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাধাগ্রস্ত করতে আগুন সন্ত্রাস করছে বিএনপি: আমু

বাংলাদেশ রাজনীতি

আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য আমির হোসেন আমু বলেছেন, সরকারের উন্নয়ন মেনে নিতে না পারায় পদ্মা সেতুর উদ্বোধন বাধাগ্রস্ত করতে বিএনপি আগুন সন্ত্রাস শুরু করছে।

তিনি বলেন, পদ্মা সেতুর উদ্বোধনকে বাধাগ্রস্ত করতে ২০১৪ সালের মতো বিএনপি-জামায়াত আবারও অগ্নিসন্ত্রাস শুরু করেছে। ট্রেন, বাসে আগুন কোনো বিচ্ছিন্ন ঘটনা না।

সোমবার (১৩ জুন) রাজধানীর ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স ইনস্টিটিটিউশন মিলনায়তনে সাবেক স্বাস্থ্যমন্ত্রী প্রয়াত আওয়ামী লীগ নেতা মোহাম্মদ নাসিমের দ্বিতীয় মৃত্যুবার্ষিকী উপলক্ষ্যে স্মরণসভায় ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে সভাপতির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ১৪ দলের ঢাকা মহানগর সমন্বয়ক মোফাজ্জল হোসেন চৌধুরীর সঞ্চালনায় সভায় অন্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, বাংলাদেশের ওয়ার্কার্স পার্টির সভাপতি রাশেদ খান মেনন, জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শেখ শহীদুল ইসলাম, আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য অ্যাড. কামরুল ইসলাম ও কেন্দ্রীয় আওয়ামী লীগ নেতা ডা. মোস্তফা জালাল মহিউদ্দিন।

বাংলাদেশের সাম্যবাদী দলের সাধারণ সম্পাদক দিলীপ বড়ুয়া, বাংলাদেশ তরিকত ফেডারশনের চেয়ারম্যান সৈয়দ নজিবুল বশর মাইজভান্ডারী, গণ আজাদী লীগের সভাপতি অ্যাডভোকেট এস কে সিকদার, বাসদের আহবায়ক রেজাউর রশীদ খান, গণতন্ত্রী পার্টির সাধারণ সম্পাদক ডা. শাহাদাত হোসেন, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ আওয়ামী লীগের সভাপতি আবু আহমেদ মান্নাফি, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচি সহ কেন্দ্রীয় ১৪ দলের নেতারা।

এসময় বাবার স্মৃতিচারণ করেন মোহাম্মদ নাসিমের ছেলে প্রকৌশলী তানভীর শাকিল জয়।

স্মরণসভায় বক্তারা মোহাম্মদ নাসিমের কর্মকাণ্ডের কথা উল্লেখ করে বলেন, সাম্প্রদায়িকতা ও জঙ্গিবাদ দমনে মোহাম্মদ নাসিমের মতো মুক্তিযুদ্ধের পক্ষের শক্তিকে লড়াই চালিয়ে যেতে হবে।

বক্তারা বলেন, দেশে যখন শান্তি বিরাজ করছে, তখন দেশকে অস্থিতিশীর করতে পাঁয়তারা করছে বিএনপি।

এ সভায় ১৪ দলের নেতারা হুঁশিয়ারি দিয়ে বলেন, ভারতে মহানবীকে নিয়ে তৈরি হওয়া ঘটনাকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশেও অশান্তি সৃষ্টির চেষ্টা হচ্ছে। আবার আন্দোলনের নামেও দেশে অরাজকতা সৃষ্টির চেষ্টা করছে বিএনপি। কোনো অশান্তি হলে সরকারের সঙ্গে ১৪ দল ঐক্যবদ্ধভাবে মোকাবিলা করবে বলেও ঘোষণা দেন তারা।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *