ভারতে মুসলমান ভেবে জৈন ধর্মাবলম্বীকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ

ভারত

ভারতের মধ্যপ্রদেশের মানসা এলাকায় মুসলমান ভেবে ভবরলাল জৈন নামের এক প্রবীণকে পিটিয়ে হত্যার অভিযোগ উঠেছে। পরে অবশ্য জানা গেছে নিহত ভবরলাল মুসলমান নন বরং জৈন ধর্মাবলম্বী। তিনি মানসিকভাবেও অসুস্থ ছিলেন। এরইমধ্যে হামলাকারীকে চিহ্নিত করা হয়েছে এবং তাকে গ্রেপ্তারে অভিযান শুরু করেছে পুলিশ।

ভারতীয় সংবাদমাধ্যম এনডিটিভি এক প্রতিবেদনে জানায়, ১৫ মে মধ্যপ্রদেশের নিমাচ জেলায় এ ঘটনা ঘটে।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহত ভানওয়ারলাল জৈন রতলাম জেলার সার্সি অঞ্চলের লোক। রাজস্থানের একটি ধর্মীয় অনুষ্ঠানে যাওয়ার পরে ১৫ মে নিখোঁজ হয়েছিলেন তিনি। শুক্রবার (২০ মে) নিমাচ জেলার একটি রাস্তার পাশে তার মরদেহ পাওয়া যায়। নিহতের মরদেহ শনাক্ত করেন তার ভাই রাকেশ জৈন। পরে তার পরিবারের কাছে মরদেহ হস্তান্তর করা হয় এবং তারা শেষকৃত্য সম্পন্ন করেছে।

পুলিশ আরও জানায়, হামলাকারীর নাম দীনেশ কুশওয়াহা। তার স্ত্রী নিমাচের বিজেপি নেত্রী। দীনেশের বিরুদ্ধে হত্যাসহ একাধিক ধারায় মামলা দায়ের করা হয়েছে।

এদিকে এ ঘটনার একটি ভিডিও সামাজিক মাধ্যমে ভাইরাল হয়েছে। সেখানে দেখা গেছে, বছর ৬৫’র এক বৃদ্ধকে এলোপাথাড়ি মারধর করছে এক ব্যক্তি। ওই প্রবীণের কাছে প্রথমে আধার কার্ড দেখতে চায় হামলাকারী। পরে জিজ্ঞাসা করে, ‘‘তোর নাম কি মহম্মদ, জাবড়া থেকে এসেছিস?’’ এর পরই ওই বৃদ্ধের গালে একের পর এক চড় মারতে দেখা যায় হামলাকারীকে।

ভিডিওতে আরও দেখা যায়, আচমকা হামলায় হতভম্ব হয়ে যান ওই প্রৌঢ়। তিনি হামলাকারীকে শান্ত করার চেষ্টা করেন। কিন্তু তাতে পরিস্থিতি আয়ত্তে আসেনি। হামলাকারীর বেদম প্রহারে ওই বৃদ্ধের মৃত্যু হয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *