নারায়ণগঞ্জ জেলা সমিতির আহবায়ক কমিটি গঠন

প্রবাস

নিউ ইয়র্ক প্রতিনিধি: নিউ ইয়র্ক প্রবাসী নারায়াণগঞ্জবাসীদের সংগঠন-নারায়ণগঞ্জ জেলা সমিতি উত্তর আমেরিকা ইনকের নামে আকস্মিকভাবে নতুন একটি কমিটির ঘোষণা দেয়ার প্রতিবাদে এক সভা হয়। গেল ৩১ অক্টোবর রাতে নিউ ইয়র্ক শহরের জ্যামাইকার মতিন রেস্টুরেন্টে এই সভা হয়। এ সভায় সভাপতিত্ব করেন নারায়ণগঞ্জ জেলা সমিতির সাবেক সভাপতি ও সংগঠনের উপদেষ্টা নির্মল পাল।

সভায় সংগঠনের সাবেক সভাপতি ও উপদেষ্টাদের মধ্যে বীর মুক্তিযোদ্ধা মতিউর রহমান, আরশাদুল বারী আসাদ, মোাহাম্মদ মজিবর, মোহাম্মদ মহসিন বক্তব্য রাখেন। আরো বক্তব্য রাখেন নূর বাবুল, এ. কে. এম. নুরুল হক, মনিরুজ্জামান সেলিম, মোস্তফা জামাল টিটো, জানে আলম বাবু, মো. আব্দুল কাদের, নিতাই দাস, দর্পণ কবীর প্রমুখ।

এই সভায় সাংগঠনিক নিয়মে সংগঠনের পরবর্তী কমিটি গঠন, বাড়ি ক্রয়ের লক্ষ্যে জমাকৃত অর্থ বিদায়ী কমিটির কাছ থেকে উদ্ধার এবং প্রবাসী নারায়ণগঞ্জবাসীর সঙ্গে গণসংযোগ বাড়াতে একটি আহ্‌ববায়ক কমিটি গঠন করা হয়। এই কমিটির আহবায়ক হয়েছেন নির্মল পাল এবং যুগ্ম-আহবায়ক হয়েছেন আরশাদুল বারী আসাদ, মোহাম্মদ মহসিন ও মোহাম্মদ মজিবর। আহবায়ক কমিটির অপরাপর সদস্যরা হলেন মোহাম্মদ মহসিন, নূর বাবুল, এ. কে. এম. নুরুল হক, মনিরুজ্জামান সেলিম, মোস্তফা জামাল টিটো, হুমায়ুন কবীর তুহিন, জানে আলম বাবু, মশিউর রহমান তুহিন, এস.এম. ইকবাল, মো. আব্দুল কাদের, নিতাই দাস, দর্পণ কবীর, মোহাম্মদ জহিরুল ইসলাম (জনী)। পরবর্তীতে এই কমিটির সদস্য বাড়ানো হবে বলে সভায় সিদ্ধান্ত নেয়া হয়।

এ সভা থেকে অবৈধভাবে গঠিত সংগঠনের নামে একটি কমিটি গঠনের কারণ জানতে বিদায়ী কমিটির সভাপতি মির্জা ফরিদ উদ্দিন এর সঙ্গে টেলিফোনে যোগাযোগ করা হলে তারা নিজ দায়িত্বে কমিটি গঠনের কথা স্বীকার করেন। নিয়ম মানা হয়নি কেন-এমন প্রশ্নের জবাবে তারা ভুল স্বীকার করেছেন এবং তা মেনে নেয়ার অনুরোধ করেন। সংগঠনের জমাকৃত অর্থের বিষয়ে তিনি কোন কথা বলতে অপরাগতা প্রকাশ করেন। একটি সমঝোতা বৈঠক করার প্রস্তাবও প্রত্যাখান করেন তিনি। এরপর উপস্থিত প্রবাসী নারায়ণগঞ্জবাসী আহবায়ক কমিটি গঠন করে।

বক্তারা এ সভায় বলেন, নির্বাচন এবং সাধারণ সভা না করে মনগড়া কমিটি গঠন করা অশুভ তৎপরতা। এমন ঘটনায় আমরা বিস্মিত ও ব্যথিত হয়েছি। অগঠনতান্ত্রিক এবং বে-আইনী কাজ থেকে বিরত থেকে সকলকে নিয়ে সভা করার অনুরোধ জানান তারা।

উল্লেখ্য, নারায়ণগঞ্জ জেলা সমিতি উত্তর আমেরিকা ইনক প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল ১৯৮৯ সালে। বিভিন্ন সময়ে এই সংগঠনে নেতৃত্বের দ্বন্দ্ব সৃষ্টি হয়েছে। ২০১৯ সালের ২৫ আগষ্ট প্রথমবারের মত এই সমিতির নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। নির্বাচনে ৫শ’ ৯৪ জন ভোটার তাদের ভোটাধিকার প্রয়োগ করেন। তাদের ভোটে ফরিদ-আলী পরিষদের প্রার্থীরা বিপুল ভোটে জয়ী হন। নির্বাচনে পরাজিত প্যানেল পরবর্তীতে পাল্টা কমিটির গঠন করে।

ঐ নির্বাচন উপলক্ষে ১৭ শ’ শতাধিক সদস্যের আবেদন পত্র জমা পড়েছিল ভোটার নিবন্ধনের লক্ষ্যে। যাচাই বাচাইয়ের পর ৩৪জন আজীবন সদস্যসহ ১৬৯৪ ভোটার চূড়ান্তভাবে নিবন্ধন করেছিল নির্বাচন কমিশন। নির্বাচন প্রক্রিয়ায় ভোটার নিবন্ধন ও মনোনয়নপত্র বিক্রি থেকে প্রায় ৩৭ হাজার ডলার আয় হয়। যা ছিল নজিরবিহীন।

নির্বাচনে ১৯ সদস্য বিশিষ্ট প্যানেলের ১৮টি পদে ৩৬ জন প্রার্থী প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেছিলেন। ঐ বছরের ২৫ অক্টোবর নির্বাচিত কমিটির অভিষেক অনুষ্ঠান হয় উডসাইডে ঢাকা ক্লাব মিলনাতয়নে। অভিষেক অনুষ্ঠানে কূটনৈতিক, কমিউনিটি নেতা, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী এবং প্রবাসী নারায়ণগঞ্জবাসী উপস্থিত ছিলেন।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *