দুই পেরিয়ে তিনে পা: বাংলা চ্যানেলের তৃতীয় প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপিত

নিউ ইয়র্ক প্রধান সংবাদ বাংলাদেশ ভারত

দুই পেরুল বাংলা চ্যানেল আজ। পা রাখল তিনে। আয়োজন সীমিত ছিল। কিন্তু উদযাপন দারুণ হলো।

আজ ১৬ জুলাই ২০২১। নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক বাংলা চ্যানেলের দ্বিতীয় বর্ষ পূর্তি ও তৃতীয় বছরে পদার্পণের দিন।

বাংলাদেশে করোনা ভাইরাস মহামারীর কারণে লকডাউন চলছিল। যদিও ঈদুল আযহা উপলক্ষে দুদিন আগে লকডাউন শিথিল করা হয়। এ প্রসঙ্গে রূপসী বাংলা প্রতিনিধির সঙ্গে টেলিফোনে কথা হয় বাংলা চ্যানেলের প্রেসিডেন্ট শাহ্‌ জে. চৌধুরীর সঙ্গে। তিনি জানান, গেল বছরে করোনা মহামারীর ফলে ঢাকায় বাংলা চ্যানেলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনের যে পরিকল্পনা ছিল সেটি বাস্তবায়ন করা যায় নি। এ বছরেও পরিস্থিতির বিশেষ উন্নতি হয় নি। একদম শেষ সময়ে ঈদকে সামনে রেখে লকডাউনে যে শিথিলতা আরোপ করা হলো, তখন প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উদযাপনের প্রস্তুতি চলছিল। ফলে শিথিল পরিস্থিতি কেমন হবে সেটি বোঝা যায় নি। সেকারণে উদযাপন পরিকল্পনা বাংলা চ্যানেলের পরিবারের মধ্যেই সীমাবদ্ধ রাখা হয়েছে।

শাহ্‌ জে চৌধুরী আরও জানান, এরপরেও বাংলাদেশের ক’জন বিশেষ ব্যক্তিত্ব নিতান্ত ভালোবাসার টানেই এ উদযাপনে যোগ দিয়েছেন। এসেছেন বাংলাদেশ কমিউনিকেশন্স স্যাটেলাইট কোম্পানি লিমিটেডের (বিসিএসসিএল) বোর্ড চেয়ারম্যান ড. শাহজাহান মাহমুদ, বরিশাল-৪ আসনের সংসদ সদস্য পঙ্কজ দেবনা‌থ এমপি, বিজিএমইএ’র সাবেক ভাইস প্রেসিডেন্ট (অর্থায়ন) মহসিন উদ্দিন আহমেদ নীরু এবং যুক্তরাষ্ট্রের নিউ ইয়র্ক থেকে উড়ে এসেছেন নিউ ইয়র্ক কমিউনিটি বোর্ড মেম্বার-৩ ও কমিউনিটি অ্যাকটিভিস্ট ফাহাদ সোলায়মান। বাংলাদেশ পুলিশের অতিরিক্ত ডিআইজি মো. বরকত উল্লাহ্‌ খানের আসবার কথা ছিল। কিন্তু ব্যক্তিগত কারণে তিনি আসতে পারেন নি বলে দুঃখপ্রকাশ করেছেন।

দিনটি উদযাপনে আজ বাংলা চ্যানেলের ঢাকা কার্যালয়ে শুধুমাত্র বাংলা চ্যানেল পরিবারের সদস্য, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও কলাকুশলীরা বিশেষ এ দিনটি করবেন বলে সংশ্লিষ্টরা জানান। আয়োজনও তেমনই ছিল। বাংলা চ্যানেলের ঢাকা কার্যালয়ে তৃতীয় বছরে পদার্পণের বিশেষ এই দিনটিকে শুধুমাত্র বাংলা চ্যানেলের সদস্যদের নিয়ে ঘরোয়াভাবে উদযাপনের আয়োজন করা হয়েছে। সীমিত পরিসরের এ আয়োজন নিউ ইয়র্ক থেকে সরাসরি তত্ত্বাবধান করেছেন চ্যানেলের চেয়ারম্যান একেএম ফজলুল হক ও প্রেসিডেন্ট শাহ্‌ জে চৌধুরী । তাঁদের তত্ত্বাবধানে সামগ্রিক আয়োজন সম্পন্ন করছেন বাংলা চ্যানেল পরিবারের সকল সদস্যরা।

বাংলাদেশ, যুক্তরাষ্ট্র ও বিশ্বের নানা প্রান্ত থেকে বিশিষ্টজন এবং বিভিন্ন নানা শ্রেণিপেশার মানুষ টেলিফোন, ইমেইল ও সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে শুভেচ্ছা জানিয়ে বাংলা চ্যানেলের সর্বাঙ্গীণ সাফল্য ও সমৃদ্ধি কামনা করছেন।

বাংলাদেশ থেকে টেলিফোনে বাংলাদেশের অন্যতম প্রধান রাজনৈতিক দল বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের শীর্ষস্থানীয় নেতা, সাবেক বাণিজ্যমন্ত্রী ও আওয়ামী লীগের উপদেষ্টামণ্ডলীর সদস্য তোফায়েল আহমেদ বাংলা চ্যানেলের এক বছর পূর্তিতে শুভেচ্ছা জানিয়ে সাফল্য ও কল্যাণ কামনা করেন।

ইতোমধ্যেই বাংলা চ্যানেলের প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষে শুভেচ্ছা জানিয়েছেন যুক্তরাষ্ট্রের ওয়াশিংটনে বাংলাদেশের রাষ্ট্রদূত এম শহীদুল ইসলাম, সাবেক মন্ত্রী ও লালমনিরহাট ১ আসনের সংসদ সদস্য মো. মোতাহার হোসেন, বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য এবং গোপালগঞ্জ-১ আসনের সংসদ সদস্য কর্নেল ফারুক খান, ঢাকা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি কুদ্দুস আফ্রাদ।

তাঁরা বাংলা চ্যানেলের সর্বাঙ্গীন সাফল্য কামনা করে বলেন, বাঙালি সংস্কৃতি লালন, নতুন প্রজন্মকে বাঙালি সংস্কৃতির সঙ্গে পরিচয় এবং বাঙালি সংস্কৃতি পালন করে মুক্তিযুদ্ধের চেতনাকে উর্ধ্বে ধরে কাজ করার চেষ্টা করে যাবে বাংলা চ্যানেল এটাই প্রত্যাশা।

তিনি বাংলা চ্যানেলের সকলকে শুভেচ্ছা জানান এবং উত্তরোত্তর সমৃদ্ধি কামনা করেন।

বাংলা চ্যানেলের প্রেসিডেন্ট শাহ্‌ জে চৌধুরী বলেন, গেল বছরেও করোনা মহামারীর কারণে প্রতিষ্ঠা বার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ কোনো আয়োজন হয় নি। এ বছরে নিউ ইয়র্কে একটা আয়োজন করা গেলেও বাংলাদেশে লকডাউনের কারণে সম্ভব হয় নি। তিনি আশাপ্রকাশ করে বলেন, আসছে বছর নিশ্চয়ই পৃথিবীর মানুষ এই মহামারীকাল কাটিয়ে উঠবে। সময় সুস্থ হলে বাংলা চ্যানেলের সে উদযাপনও হয়ে উঠবে আরও স্মরণীয়।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *