আগরতলায় মুক্তিযুদ্ধে স্মৃতিস্তম্ভ ভাঙার প্রতিবাদ জানালেন শাহ্‌ জে. চৌধুরী

প্রবাস

১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা ও মুক্তিযুদ্ধে শহীদের স্মরণে ভারতের ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলায় নির্মিত হয়েছিল স্মৃতিস্তম্ভ। সম্প্রতি স্মৃতিস্তম্ভটি ভেঙে ফেলা হয়েছে বলে জানা গেছে। এ ঘটনায় দেশ ও বিদেশের বাংলাদেশি নাগরিকরা উদ্বেগ জানিয়ে বিবৃতি দিয়েছেন।

নিউ ইয়র্ক ভিত্তিক টেলিভিশন চ্যানেল বাংলা চ্যানেল ও রূপসী বাংলার সম্পাদক -এর শাহ্‌ জে. চৌধুরী প্রতিবাদ জানিয়ে একটি বিবৃতি পাঠিয়েছেন।

বিবৃতিতে শাহ্‌ জে. চৌধুরী বলেন, বাংলাদেশের একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধ স্বাধীনতার ইতিহাসের অবিচ্ছেদ্য অংশ। একাত্তরের মুক্তিযুদ্ধে ভারত এবং ভারতের ত্রিপুরার মানুষের ছিল বিশাল সমর্থন ও সহযোগিতা। ভারত ও বাংলাদেশের গণমানুষের অভিন্ন মুক্তির আকাঙ্ক্ষা ও সৌহার্দ্যের অন্যতম প্রধান স্মৃতিচিহ্ন ত্রিপুরা রাজ্যের রাজধানী আগরতলার কেন্দ্রস্থল পোস্ট অফিস চৌমোহনীর ৪০ ফুট উঁচু শহীদ স্মৃতিস্তম্ভটি। এই দু দেশের বীর শহীদদের সঙ্গে সৌহার্দের চিহ্ন হলো মুক্তিযুদ্ধের এই স্মৃতিস্তম্ভটি।

শাহ্‌ জে. চৌধুরী বিবৃতিতে আরো বলেন, বাংলাদেশ ও ত্রিপুরার সাধারণ মানুষদেরকে ঐতিহাসিক বন্ধনে আবদ্ধ করেছিল আগরতলার এই স্মৃতি-বিজড়িত স্থানটি ঘিরেই। পত্রিকায় খবর এসেছে, ভারতের বর্তমান বিজেপি সরকার উন্নয়ন কাজের নামে সম্প্রতি সেটি ভেঙে ফেলেছে।

শাহ্‌ জে. চৌধুরী বলেন, বিজেপি সরকারের এই সিদ্ধান্ত আমাকে কেবল কষ্ট দিয়েছে, তাই নয়। এটি লজ্জাজনক। এটি অপমানজনক। ভারতের বন্ধুরাষ্ট্র বাংলাদেশের মানুষ ও একাত্তরেরর বীর শহীদ মুক্তিযোদ্ধাদের প্রতি এ অপমান ও উপেক্ষা। আমি এর তীব্র প্রতিবাদ জানাই। একই সঙ্গে দু দেশের মানুষের সম্পর্কের প্রতীক আগরতলায় স্থাপিত স্মৃতিস্তম্ভটি পুনঃস্থাপন ও যথাযথ সংরক্ষণের দাবি জানাই।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *